” হাতখানি ধ’রে নিমন্ত্রণ চাহিয়া ”
রুদ্র ম আল-আমিন

হাতখানি ধ’রে নিমন্ত্রণ চাহিয়া একদা চোক্ষের জল ফেলে।
প্রতিমা জানে না,,
কেন অমন করিয়া অধরা কাঁদিয়া বেড়ায়
রোজ রোজ তাহার ঘরে?
রথযাত্রায় পরিচিতিপ্রাপ্ত হইবার কালে দুদন্ড কথা কহিতেই
প্রতিমা বেহুশা হইলো রথখোলার মাঠে।
ধম্ম ধম্মান্ধ তীর্থপটে
প্রতিমা কাতর হইয়া ভাবিতে থাকে
লাজনম্র জানিতো তাহারে বহুকাল ধরে।
অধরাকে দান কি করিয়া প্রান,
দেবে আজি অন্যের বোনা জালে।
সন্ধের শাখ বাজিবার তরে
রথযাত্রা সাঙগ হইয়া তখুন যে যার ঘরে।
কি কথা কহিল অধরা
বাড়িসুদ্ধ লোকেরা ইহার পুঙ্খানুপুঙ্খ বিশ্লেষনে মরে।
হৈচৈ বাধিল দুগাঁয়ের ছেলেবুড়ো মিলে
রাত্রীগভীর হইয়া মিটিমিটি তারা জ্বলিবার কালে
বিভেদ চুকিয়া গেলো সবে।
বাঁধসাদিল প্রতিমা সকলেরে মিনতি করে,
কিন্ত সেইরাত্রেই
অধরা রাজ্যজয়ের আনন্দ বিরাগভাজন করিল ঢোলডাঙগর লয়ে।
প্রতিমা আজো খুজিয়া ফেরে,,
একদা অভীষ্ট মনোবাসনা পূর্ন করিবার লাগি,,
মাঝবয়সী এই নমনীয়া,
হয়তো ধর্ম্মান্ধ ব’লে
সকলেই তাহারে সেইদিন দিয়েছিল ফাঁকি যে।

” হাতখানি ধ’রে নিমন্ত্রণ চাহিয়া ” https://rudromalamin.blogspot.com/2019/07/blog-post.html