সিরাজগঞ্জ জেলার এনায়েত পুর থানাকে উপজেলায় উন্নতি করার জোর দাবী এখুন এলাকাবাসীর। কারন, এ অন্চলে আছে স্কুল, কলেজ,ইনিস্টিউট, ভার্সিটি, নামিদামি হসপিটাল এবং বিভিন্ন প্রাইভেট প্রতিষ্ঠান ছাড়াও দেশ বিখ্যাত তাঁতের শাড়ি উৎপাদনের কারখানায় সয়লাভ পুরো এই এলাকা।
বানিজ্যিক ভাবে বর্তমানে সিরাজগন্জ ইকোনোমিক জোনের আওতায়। কিন্ত পরিতাপের বিষয় হইল, এখানে উপজেলা নাই।এনায়েতপুর সিরাজগঞ্জ জেলা রাজশাহী বিভাগেরএকটি শহর। এনায়েতপুর যমুনা নদীর তীরে ঢাকার প্রায় ১৩৭ কিলোমিটার (৮৫ মাইল) উত্তর-পশ্চিমে যমুনা সেতুর কাছে অবস্থিত।২০০০ সালে শাহজাদপুর উপজেলার দুইটি ইউনিয়ন, চৌহালী উপজেলার দুইটি ইউনিয়ন বেলকুচি উপজেলার একটি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত হয় এনায়েতপুর থানা।এখন এলাকাবাসীর দাবি এনায়েতপুর থানা ও চৌহালী উপজেলা একত্রিত করে “এনায়েতপুর উপজেলা” নামকরণ করা হলে এ অঞ্চরের সাধারণ মানুষের ভাগ্যের উন্নয়ন ঘটবে।অপরদিকে চৌহালী উপজেলাটি নদী ভাংগনের কবলে, এই উপজেলাকে স্থানান্তরন করলে এর সুফল পেতে পারে দু অন্চলে লোকজনই। কারনটাঙ্গাইল জেলা ঘেষা চৌহালীর পূর্বপ্রান্তে উপজেলা পরিষদের অফিস-আদালত, আবাসিক ভবন নির্মাণ করা ছাড়া আর কোন জায়গা-জমি নেই।সিরাজগঞ্জ জেলার সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থা ভাল থাকায় চৌহালী-এনায়েতপুরের জনস্বার্থে যমুনার পশ্চিমপাড়ে খামার গ্রাম, এনায়েতপুর অথবা বেতিল গ্রামে জায়গা অধিগ্রহণ করে উপজেলা পরিষদের দালান কোঠা নির্মাণ করার ব্যবস্থা গ্রহণ একান্তই জরুরি প্রয়োজন হয়ে পড়েছে বলে অভিজ্ঞা মহল মনে করেন।রুদ্র ম আল-আমিন