আমি এখুন নাটোর শহর থেকে টাংগাইল শহরে।এই শহরে পা রাখতেই জানতে পারলাম, যুগনী গ্রামে ভাই ও বোন মিলে দুইজন ব্যাক্তিকে খুন সহ ঐ গ্রামের বেশ কয়েকজন কে মারাত্বক ভাবে আহত করেছে ।
পাঠক, ঘটনাটি আমার এক বড়ভাইয়ের নিকট শুনেই আমার মনে ইচ্ছে জাগলো, খুন হয়ে যাওয়া পরিবার গুলোকে দেখতে যাবো এক নজর।
ব্যাস কথা বলতে বলতেই এবার তাঁর মোটর বাইকে চড়ে বসলাম।।টাংগাইল শহরের ক্যাপসুল মার্কেটের সামনে থেকে আমরা দুজনেই রওনা হলাম বাঘিল ইউনিয়ন পরিষদের দিকে। আমরা প্রায় কুড়িমিনিটের মধ্যেই পৌছে গেলাম ঘটনাস্থলে।
মোটরবাইক থেকে নামতেই চোখে পড়লো বেশ কয়েকজন আমার পরিচিত ব্যাক্তি। কারন, এই গ্রামে আমি ছোটবেলায় বহুবার এসেছি। ঠিক এই গ্রাম থেকেই দু’কিলোমিটার উত্তরদিকেই আমার মামার বাড়ি সেই সুবাধে এই অন্চলের পথঘাট আমার বেশ পরিচিত । কিন্তু এখানে বসে যা শুনলাম এতে আমার গা শিউরে উঠল। কারন, । অপর দিকে লোকমুখে শোনা, যারা এই দুটি খুনের সাথে জরিত রয়েছে তারাও আমাদের নিকট আত্বীয়। কিন্তু তারা সবাই পলাতক রয়েছে। আমি খুন হওয়া পরিবারকে দেখে চোখের পানি ধরতে পারিনি।
এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এখুনো আসামীগন দৃত হননি।