সাংবাদিক জামাল খাশোগি ব্যক্তিগত কাগজপত্র আনার জন্য গত ২ অক্টোবর তুরস্কের ইস্তাম্বুলে অবস্থিত সৌদি কনস্যুলেট ভবনে ঢোকেন। কিন্তু তিনি সেখান থেকে আর ফিরে আসেন নি। এর আগে সৌদি রাজতন্ত্রের বিরোধিতাকারী খাশোগি ২০১৭ সাল থেকে যুক্তরাষ্ট্রে স্বেচ্ছা-নির্বাসিত জীবন-যাপন করছিলেন। বিবাহ বিচ্ছেদের দলিল সংক্রান্ত কাজে তিনি তার হবু বউকে কনস্যুলেটের বাইরে রেখে ভেতরে প্রবেশ করেন। এরপর আর তিনি বেরিয়ে আসেন নি।
এর পর সৌদি কনসুলেট এর ভিতরে খাশোগিকে টুকরো টুকরো করে ফেলা হয়। আর এই তথ্য তার ব্যবহৃত হাতঘরি অ্যাপল থেকে জানা যায়।
পাঠক,
শুধু সৌদি সরকার নয় মধ্য প্রাচ্যসহ পূর্বএশিয়ার দেশ গুলোতে হরহামেশাই এরকম ঘটনা দেখা যাচ্ছে। এইসব জালেম শাসকদের হাত থেকে সাধারন মানুষ কবে মুক্তি পাবে?
রুদ্র ম আল-আমিন