রুদ্র ম আল-আমিন এর উপন্যাস
(পর্ব-৬৮)
“একজন মুক্তিযোদ্ধা”

বদরদের দুখের দিনে ইয়াইজ্জাও কোন খোজ খবর নিচ্ছে না। বলা যায় তিনি যাতায়াত প্রায় বন্ধ করে দিয়েছে।
বদরের বাবা,
ঘটনা ক্রমে ইয়াইজ্জাকে আসতে নিষেধ করেছিল কিন্ত তাই বলে বিপদেও এগিয়ে আসবে না তাহা মাতব্বর কোনদিনও ভাবেনি।
রমাদি, বদরকে ঘর থেকে বের করে নিয়ে গেল নদীতে স্নান করবে বলে। নদীতে তখুনও প্রচুর স্রোত বইছে।
রমাদি কখুনো নদীর জলে স্নান করেনি, নদীর তরংগে স্নানের অর্থ এই নয় যে, শুধু গা গতর ধুয়ে ফেলা। নদী মানুষের মনের গহীণে লুকানো দুঃখ কষটও ভুলিয়ে দিয়ে থাকে।
নদীতে স্নান সেরে রমাদি ভেজা কাপড়ে রওনা হল বাড়ির দিকে। বাড়ি ফিরে দেখল যে,
অনেকদিন পর ইয়াইজ্জা এসে বাবার সাথে কি বিষয়ে কথা বলছে, তাহা জানা গেল না।রমাদি, টুনির ঘরে প্রবেশ করিয়া টুনির পরনের কাপড়র পরিধান করল। টুনি রমাদির চেয়ে একটু বাড়ন্ত হওয়ায় সালোয়ার ও কামিজ বেশ আলখেল্লা হয়ে গেল।
ইয়াইজ্জা বদরের বাবার নিকট থেকে বেরিয়েই বদরকে বুকে জরিয়ে ধরলেন।
এর পর নিয়ে চললেন বাড়ির বাহিরে,
তারপর ইয়াইজ্জা বলল,
ঃদোস্ত মিয়া চিন্তা কইরেন না, আমি বাইচ্চা আছি। যা করনের করুম নে।
মায় দেখবার চায় আপনারে,
বদরের কোন প্রতুত্তর না পেয়ে ইয়াইজ্জা আবারও বলল,
ঃ মাইয়াডা খুব সুন্দর, হ্যারে নিয়াই চলেন মায়ের লগে দ্যাহা কইরা আইবেন।
ঠিক সেই সময়ই বদরের বাবা বাহিরে এলো। এসেই বলল,
ঃ বাজান,,,যাইয়া ঘুইরা আহো।
বদর সেইদিনই টুনি ও রমাদি কে সাথে নিয়ে চলল অনেকদিন পর দোস্তে-র বাড়ি।
ইয়াইজ্জাদের বাড়ি বদরদের বাড়ি থেকে দক্ষিনে কাতুলী ইউনিয়নে। এই খানে ইয়াইজ্জা হলো অলিখিত রাজা।কারন ইয়াইজ্জাকে ভয় পায় না এরকম লোকজন খুজে পাওয়া খুবই দুরুহ।
ইয়াইজ্জাদের বাড়িত বদর প্রবেশ করা মাত্রই, তাঁর মা বুকে জরিয়ে কাঁদতে লাগলেন। অনেকদিন পর ছেলেকে কা্ছে পেয়ে মা আবেগআপ্লুত হয়ে পড়েন।
ইয়াইজ্জা ঘোড়া সাজাতে লাগলেন বদরদের বাড়ি মালপত্র পাঠানোর জন্য। কারন বদরদের এই দুর্দিনে পাশে থাকাটাই যেনো সে শ্রেয় মনে করলেন। সে রাতেই পৌছে দিলেন চাল, ডাল সহ বেশ কিছু খাবার দাবার।
রমাদি ও টুনি কে ইয়াইজ্জার মা বেশ খাতির যত্ন করতে লাগল,
ইয়াইজ্জা, বদরকে সেই ছোটবেলার স্মতি ঘুরে ফিরে দেখাতে লাগলেন, এভাবেই কেটে গেল তাদের দু’দিন দুইরাত।
এর পর বদরের বাড়ি ফেরার পালা। বদর, টুনি ও রমা যখন ইয়াইজাদের বাড়ি থেকে বের হলেন ইয়াইজার মা তাদের পিছনে পিছনে হাটতে লাগলেন।
প্রায় মাইল খানেক হেটে আসার পর বদর বলল,
ঃ মা তুমি বাড়ি যাও গে, ,
আমি আবার একদিন আসুম, তোমারে দেখতে,
ইয়াইজার মা তখুন দাড়িয়ে পড়ল এবং বলল,
ঃ কবে আইবি বাজান,,,, ,,,,
(চলবে)